১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ১০:২১

আগামীকাল বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত

পুণেতে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে আগামীকাল (বৃস্পতিবার) মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও স্বাগতিক ভারত। পরাজয়ের গ্লানিতে থাকা বাংলাদেশ দলের আত্মবিশ্বাস ঠেকেছে একেবারে তলানিতে। ২২ গজে নিজেদের সেরাটা দিয়ে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার লক্ষ্য টিম বাংলাদেশের। ইনজুরিতে থাকা বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের এই ম্যাচে খেলা নিয়ে শঙ্কা কেটেছে। অন্যদিকে, টানা তিন জয় নিয়ে ভারতীয় দল রয়েছে ফুরফুরে মেজাজে। মহারাষ্ট্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলাটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে। 

বিশ্ব ক্রিকেট মঞ্চে বাংলাদেশ ও ভারতের খেলা এক অনন্যা উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। সেটা হোক একদিনের কিংবা টি- টোয়েন্টি ফরম্যাটে। ২০০৭’র বিশ্বকাপে ভারতকে হারানোর পর থেকেই এই দু’দলের ম্যাচ নিয়ে ক্রিকেট বিশ্লেষক, সমর্থক থেকে শুরু করে খেলোয়াড়রাও রোমাঞ্চিত থাকেন। 

এবারের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ দল আফগানিস্তানকে হারিয়ে দারুণ শুরু করেছিলো। কিন্তু, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা মানসিকভাবে কিছুটা বিপর্যস্ত। পুণেতে শনিবার দুই দিন বিশ্রামে ছিলো বাংলাদেশ দল। মঙ্গলবার এবং ম্যাচের আগের দিন পূর্ণ সেশনে বাংলাদেশ অনুশীলন করেছে। তবে ভারতের বিপক্ষে খেলার আগে আলোচনার কেন্দ্রন্দিুতে ছিলো বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ফিটনেস নিয়ে। 

পুণেতে সাকিব আল হাসান অনুশীলন করেছেন। ভারতের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের জন্য নিজেকে ফিট করে তুলছেন অধিনায়ক। দলের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা প্রথম তিন ম্যাচে ধারাবাহিকভাবে ভালো করতে পারেনি। এই জায়গায় উন্নতির জন্য অনুশীলনে দীর্ঘ সময় কাজ করেছেন কোচিং স্টাফরা। ফাস্ট বোলাররা যেনো ছন্দ ফিরে পায় সেটা নিয়ে কাজ করেছেন অ্যালান ডোনাল্ড। ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ খেলতে চায় চাপমুক্ত হয়ে। 

নিজেদের মাটিতে বিশ্বকাপ ট্রফি জেতার লক্ষ্য নিয়ে আসর শুরু করেছে স্বাগতিক ভারত। অস্ট্রেলিয়া, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় নিয়ে স্বাগতিক দলের ক্রিকেটাররা যথেষ্ট ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন। আত্মবিশ্বাসী ভারতের লক্ষ্য ২২ গজে নিজেদের সেরাটা খেলা। ভারতের রয়েছে দুর্দান্ত ব্যাটিং এবং বোলিং লাইনআপ। বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইন চিন্তা করেই একাদশ সাজাবে ভারত। 

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে দু’দলের চারবারের সাক্ষাতে ভারত জয় পেয়েছে তিনবার আর বাংলাদেশ জিতেছে এক খেলায়।