১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ৯:৩০

ইসরায়েলে হামলায় ১০ নেপালি শিক্ষার্থী, থাইল্যান্ডের ১২ নাগরিক নিহত

ইসরায়েলে ১০ নেপালি শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। এছাড়া গুরুতর আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। অন্যদিকে ইসরায়েলে থাইল্যান্ডের ১২ নাগরিক নিহত হওয়ার কথা জানানো হয়েছে। এমনকি অপহরণের শিকার হয়েছেন আরও ১১ থাই নাগরিক।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের সঙ্গে ইসরায়েলের চলমান লড়াইয়ে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে বলে পৃথক দুই প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং এনএনআই।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলে হামাসের হামলায় ১০ জনের মতো নেপালি শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে বলে নেপাল দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা রোববার সন্ধ্যায় এএনআইকে জানিয়েছেন।

ফোনে কথা বলার সময় ইসরায়েলে নেপালি দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি অর্জুন ঘিমিরে এএনআইকে বলেন, ‘নিহত ১০ নেপালির মৃতদেহ শনাক্ত করা হয়েছে বলে ইসরায়েলি পুলিশ আমাদের নিশ্চিত করেছে। এছাড়া কেউ কেউ এখনও যোগাযোগের বাইরে এবং আহত কারও কারও শারীরিক অবস্থা গুরুতর। তাই মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে।’

এদিকে নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এনপি সৌদ রোববার সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে দেওয়া পোস্টে ইসরায়েলে হামাসের হামলার ঘটনায় (নেপালিদের) সম্ভাব্য হতাহতের ইঙ্গিত দিয়েছেন। এর আগে শনিবার নেপালের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, ইসরায়েলে হামাসের হামলার পর নয়জন নেপালের নাগরিক আহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর।

পরে শনিবারই নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দাহল প্রচন্ড ইসরায়েলে হামাসের অভূতপূর্ব হামলার নিন্দা জানিয়ে সেখানে আহত নেপালি নাগরিকদের প্রতি সমবেদনা জানান।

দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটির সরকারের রেকর্ড অনুযায়ী, আনুমানিক সাড়ে চার হাজার নেপালের নাগরিক বর্তমানে ইসরায়েলে বসবাস করছেন। হামাস ও ইসরায়েলের সংঘাত শুরুর পর নেপাল সরকারও তার নাগরিকদের সতর্ক থাকার এবং কর্তৃপক্ষের পরামর্শ অনুযায়ী নিরাপত্তা ব্যবস্থা অনুসরণ করার অনুরোধ করেছে।

এদিকে ইসরায়েলে নিহত হয়েছেন থাইল্যান্ডের ১২ নাগরিক। থাইল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সোমবার বলেছে, ইসরায়েলে চলমান অস্থিরতায় ১২ থাই নাগরিক নিহত হয়েছেন এবং আরও ১১ জন অপহৃত ও আটজন আহত হয়েছেন।

থাই পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কাঞ্চনা পাতারাচোকে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা ইসরায়েলে থাকা থাই নাগরিকদের সাহায্য করার জন্য কাজ করছি।’

এছাড়া হামাসের হামলায় ইসরায়েলে বেশ কয়েকজন মার্কিন নাগরিক নিহত হয়েছেন। এই ঘটনার পর ইসরায়েল উপকূলে বিমানবাহী রণতরী পাঠানোর কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা এএফপি বলেছে, ‘আমরা ইসরায়েলে বেশ কয়েকজন মার্কিন নাগরিকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারি। আমরা ক্ষতিগ্রস্তদের এবং ক্ষতিগ্রস্ত সকলের পরিবারের প্রতি আমাদের গভীর সমবেদনা জানাই।’

অবশ্য নিহত মার্কিন নাগরিকদের সঠিক সংখ্যা বা তাদের পরিচয় সম্পর্কে ওই কর্মকর্তা আর কোনও তথ্য দেননি।

এদিকে পৃথক প্রতিবেদনে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা বলেছে, ইসরায়েলে হামাসের হামলায় বেশ কয়েকজন বিদেশি নাগরিক নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে দুজন ইউক্রেনের নাগরিক, একজন ফরাসি নাগরিক এবং ১০ জন নেপালি নাগরিক রয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে অন্তত তিনজন আমেরিকানও রয়েছেন বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।