১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ৪:০০

পর্যটক এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু

ঢাকা-কক্সবাজার রেলপথ চালু হওয়ার পর এই রুটে যুক্ত হয়েছে নতুন আরও একটি ট্রেন ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’। ৭৮০ যাত্রী ধারণ ক্ষমতার এ ট্রেনটি সপ্তাহে ছয়দিন ১৬টি অত্যাধুনিক কোচ নিয়ে এ পথে চলাচল করবে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বলছে নতুন এই ট্রেনটি চালু হওয়ায় কক্সবাজারে পর্যটকদের চলাচল অনেক সহজ হবে। ট্রেনটি চালু হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করে যাত্রীরা এরসেবা ও  নিরাপত্তার বিষয় আরও গুরুত্ব দেয়ার তাগিদ দেন। এদিকে, এ পথে ট্রেনের সংখ্যা আরও  বাড়ানোর কথা জানালেন রেলের মহাপরিচালক কামরুল আহসান।

তখনো আলো ফোটেনি পূব আকাশে। পৌষের ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন প্রকৃতি। এই কুয়াশা ভেদ করেকমলাপুর স্টেশন থেকে হুইশেল বাজিয়ে চলতে শুরু করলো পর্যটক এক্সপ্রেস।গন্তব্য পর্যটন নগরী কক্সবাজার।

রোববার বাদে সপ্তাহে ছয়দিন ভোর সোয়া ছয়টায় কক্সবাজারের উদ্দেশে কমলাপুর ছাড়বে পর্যটক এক্সপ্রেস। আর ঢাকার উদ্দেশ্যে কক্সবাজার ছাড়বে রাত ৮টায়। অত্যাধুনিক ১৬টি কোচে ৭৮০জন যাত্রী নিয়ে বুধবার সকালে ঢাকা ছাড়ে ট্রেনটি। সেবার মান ভালো রাখার পাশাপাশি নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখতে বললেন যাত্রীরা।

পর্যটক এক্সপ্রেসে যাত্রীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান রেলওয়ের মহাপরিচালক কামরুল আহসান। পরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন,যাত্রীদের সুবিধার্থে এ পথে বাড়ানো হবে ট্রেন। পাশাপাশি নাশকতা এড়াতে নেয়া হচ্ছে বাড়তি নজরদারি।

গেলো পহেলা ডিসেম্বর রাজধানীর সঙ্গে রেলপথে যুক্ত হয় সৈকত শহর কক্সবাজার। পর্যটক এক্সপ্রেস চালুর মধ্যে দিয়ে এই ঢাকা-কক্সবাজার রুটে এখন দুটি ট্রেন চলাচল করছে।