২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ২১শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি / সকাল ৯:২৮

বইমেলায় ‘‘ সিনড্রেলা দেবী ‘’

বইমেলার দিনলিপি

ছোটদের বই বাড়ছে । খুদে পাঠক বাড়ছে। খুদে লেখকদের বইয়ের পাঠক তাদেরই স্কুল পরুয়া বন্ধুরা বইমেলায় আসছে। আসছে সবার পরিবার। পরিজন। বিগত দুটি সপ্তাহের ‘অভিযোগ নিউজ বিডি২৪’ এর দৃষ্টিতে বইমেলার দিনলিপির সেরা উৎফুল্ল দর্শনার্থী নির্বাচিত করা যায়- ছোট্ট এই কিউট বেবিকে। মন্দ্রিকা নাম। ডাক নামও সুন্দর। রাই! বইমেলয় যেন এক ‘সিনড্রেলা দেবী’। রাই এসেছে বাবা ‘নাট্যবিন্দুর’ থিয়েটারকর্মী মনোজ মল্লিকের হাতটি ধরে। মেলায় ওর ছুটোছুটি। ছবির বই। লেখার বই। আঁকার বই। সবই কিনে নিয়েছে রাই ! দিনটিকে সে শুধু তার একান্ত দিন করে নিয়েছে। মন্দ্রিকা রাই’রা ই বইমেলার প্রাণ! নবদিনের আলো …. সব পিতা মাতারই ছোটদের একটি দিনের জন্য হলেও সময় দিতে হবে। ওদের নিয়ে একটু ঘুরতে হবে। চেনাতে হবে। বইমেলার সময় যখন বইমেলার পরিবেশই ছোট্টমনিদের জন্য একটি সুন্দর পরিবেশ হতে পারে। শিল্প সংস্কৃতির পরিমÐলে বেড়ে ওঠতে হবে বাবা মাকে তা নয়। সব পরিবারেরই উচিত। এখন থেকেই সন্তানকে একটু সময় দেয়া। আপনার সন্তান বেড়ে ওঠুক সুদ্ধ নির্মল সংস্কৃতির মননে। ‘কিউট সিনড্রেলা ’ হলো ‘অশনি ও অপ্রীতিকর’ বিষয়কে বইমেলা থেকে দূরিভূতকারী আশীর্বাদ …

গতকাল অমর একুশে বইমেলার ১৮তম দিন ছিল। নতুন বই এসেছে ৮৩টি। বিকেল ৪ টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় স্মরণ : জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্বরোচিষ সরকার। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন লুভা নাহিদ চৌধুরী এবং এম আবদুল আলীম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক উপদেষ্টা কবি কামাল চৌধুরী।
প্রাবন্ধিক বলেন, জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বাঙালি মুসলমানের আত্মপরিচয় নির্মাণবিষয়ক গবেষণাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন বিভিন্ন সংকলনগ্রন্থ ও প্রবন্ধ রচনার মধ্য দিয়ে। তিনি তাঁর প্রবন্ধগুলোতে এমন সব প্রসঙ্গ তুলে এনেছেন যা সমকালের মুসলমান বাঙালির হীনম্মন্যতা দূর করে, বাঙালির সমন্বিত সাংস্কৃতিক উত্তরাধিকার সম্পর্কে সবাইকে অবহিত করে, সাংস্কৃতিক বহুত্বের মধ্যে উদার মানবিক দিকগুলোকে সামনে নিয়ে আসে, বাঙালির আত্মপরিচয়ের মূল বিন্দুগুলোকে স্পর্শ করে, সর্বোপরি, বাঙালির জাতীয়তাবাদী উপাদানগুলো সামনে তুলে ধরে।
আলোচকবৃন্দ বলেন, জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান তাঁর কর্মময় জীবনে জ্ঞান সৃষ্টি ও বিতরণের কাজে নিয়োজিত ছিলেন। রাষ্ট্রীয় ও জাতীয় নানা দুর্যোগে তিনি মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। পরিমিতিবোধ, অসাম্প্রদায়িক চেতনা, আন্তরিকতা ও মানুষের প্রতি ভালোবাসা তাঁর জীবনচর্যা ও সৃষ্টিকর্মের মধ্য দিয়ে প্রতিফলিত হয়েছে। আজীবন তিনি বাঙালির সংস্কৃতির শেকড়ের সন্ধান করেছেন। তাঁর মূল্যবান চিন্তা ও জ্ঞানসমৃদ্ধ প্রবন্ধ দেশের বাইরেও সমাদৃত হয়েছে।
সভাপতির বক্তব্যে কামাল চৌধুরী বলেন, জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বহুমাত্রিক ও বর্ণাঢ্য জীবনযাপন করেছেন। সমগ্র জীবনব্যাপী তিনি বাঙালির মুক্তি ও অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখেছেন এবং এই স্বপ্ন আমাদের সবার মাঝে সঞ্চারিত করেছেন। তিনি তাঁর পাÐিত্য, জ্ঞান ও কর্মের মধ্য দিয়ে তরুণ সমাজকে পথ দেখাবেন।
আজ ‘লেখক বলছি’ অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন কথাসাহিত্যিক মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক, শিশুসাহিত্যিক রোমেন রায়হান, কবি সৈকত হাবিব এবং গীতিকবি মনোরঞ্জন বালা। এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠ করেন কবি কামাল চৌধুরী, মুস্তাফিজ শফি, নজমুল হেলাল, মাহবুবা ফারুক, রাকীব হাসান, রিশাদ হুদা এবং নাজমা আহমেদ। আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী মো. শওকত আলী, মো. এনামুল হক, শিরিন সুলতানা, সুপ্রভা সেবতী, অনিকেত রাজেশ এবং ফেরদৌসী বেগম। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মামুনুর রশীদের রচনা ও নির্দেশনায় ‘কহে ফেসবুক’ নাটক পরিবেশন করে ‘আরণ্যক নাট্যদল’। আজ ৬ই ফাল্গুন ১৪৩০/১৯শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ সোমবার। অমর একুশে বইমেলার ১৯তম দিন। মেলা শুরু হবে বিকেল ৩ টায় এবং চলবে রাত ৯ টা পর্যন্ত। বিকেল ৪ টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে স্মরণ : হাসান আজিজুল হক শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন মোজাফ্ফর হোসেন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন ফারুক মঈনউদ্দীন এবং মহীবুল আজিজ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক ভীষ্মদেব চৌধুরী।

মারুফ আহমেদ, বিশেষ প্রতিনিধি

তথ্যসেবাঃ সমীর কুমার সরকার
পরিচালক, জনসংযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ বিভাগ, বাংলা একাডেমি।