২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ১০:২৩

বাঘারপাড়ায় তীব্র খরতাপ ও গরম আবহাওয়ার কারণে লিচুর ব্যাপক ক্ষতিহতাশাগ্রস্থ বাগান মালিক এবং ব্যাবসায়ী

সাঈদ ইবনে হানিফ ] একদিকে তীব্র খরতাপ অন্যদিকে অসহনীয় গরম আবহাওয়া, লিচু জাতীয় ফল ও ফসলের জন্য দুটোই মারাত্মক ক্ষতিকর। এবছর যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলাসহ আশপাশের অঞ্চল গুলোতে লিচুর গুটি আসার পর থেকে তীব্র খরতাপ ও গরম আবহাওয়ার কারণে একপ্রকার চিন্তিত ছিল বাগানের মালিক সহ লিচু ব্যাবসায়ীগন। গরমে লিচুর যাতে ক্ষতি না হয় এজন্য চেষ্টার কোন ক্রুটি ছিল না তাদের। এজন্য শুরু থেকেই তারা কীটনাশক ব্যাবসায়ীসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে নিয়মিত পরামর্শ নিয়ে লিচু বাগানের পরিচর্যা করে গেছেন। তবুও তাদের শেষ রক্ষা হয়নি। লিচু বাগানের জন্য বিক্ষ্যাত উপজেলার ঘোষনগর, জামালপুর, বাগডাঙ্গা, রাধানগর, খলিলপুর মাহমুদপুর, আয়াপুর দরাজহাট গ্রামের বেশিরভাগ লিচু বাগানে খোঁজ দেখা গেছে, প্রতিটি ছড়ার বেশিরভাগ লিচুতে স্পট পড়েছে বা একপাশে কালো রং ধারণ করছে। লিচু বাগানের মালিক ও ব্যাবসায়ী হযরত আলি, বাবুলগাজি, জয়নাল, তরুণ দেবনাথ সহ বেশ কয়েক জনের সাথে বললে তারা জানায়, কিছু দিন আগের খরা ও গরম আবহাওয়ার কারণে তাদের বাগানের চরম ক্ষতি হয়েছে । অনেক গাছের লিচু পুড়ে গেছে ঝরে গেছে । তারা বলেন, গতবছরের তুলনায় এবছর লিচুর ফলন অনেক কম। তবুও দুর্যোগ পূর্ণ আবহাওয়া না হলে মোটামুটি ফলন পাওয়ার আশা ছিল। জানা গেছে, প্রতি বছর লিচুর বোল আসার পর বাগান মালিকদের নিকট থেকে এলাকার অনেক ব্যাবসায়ী লিচু বাগান ক্রয়ের পর তা পরিচর্যা করে লিচু উৎপাদন করে থাকে । দুর্যোগ পুর্ণ আবহাওয়া দেখা দিলে তারা আর্থিক ভাবে চরম ক্ষতির মধ্যে পড়ে যায়।