১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ৮:৫৯

রাষ্ট্রপতির বাড়িতে প্রধানমন্ত্রী

মিঠামইনে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হামিদ সেনানিবাসের উদ্বোধন শেষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের আমন্ত্রণে কামালপুরে তার পৈতৃক নিবাসে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পৌনে ১টার দিকে সেখানে পৌঁছান তিনি। সেখানে জোহরের নামাজ শেষে রাষ্ট্রপতি সঙ্গে একই টেবিলে দুপুরে খাবার খাবেন প্রধানমন্ত্রী।

জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীকে হাওরের ২০ প্রজাতির মিঠাপানির মাছ দিয়ে আপ্যায়ন করা হবে। সঙ্গে থাকবে গরু-মহিষের দুধ দিয়ে তৈরি ঐতিহ্যবাহী অষ্টগ্রামের পনির। এই পনিরের ঐতিহ্য দিল্লির মুঘল সম্রাটের দরবার পর্যন্ত ছিল।

রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আজ মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দিনব্যাপী সফরের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী বেলা ১১টা ২২ মিনিটে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল হামিদ সেনানিবাসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এসময় সেনানিবাসের প্যারেড গ্রাউন্ডে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন সেনাসদস্যরা। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পাঁচটি ইউনিটের পতাকা উত্তোলন করা হয়। সেখানে তিনি দুপুর ১টা পর্যন্ত অবস্থান শেষে রাষ্ট্রপতির বাড়িতে যান।

দীর্ঘ দুই যুগ পরে আবারও কিশোরগঞ্জের হাওর উপজেলা মিঠামইন সফরে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা।

রাষ্ট্রপতির বাড়িতে দুপুরের খাবার শেষে বিকেল ৩টায় প্রধানমন্ত্রী যোগ দেবেন মিঠামইন সদরের হেলিপ্যাড মাঠের সুধী সমাবেশে।

প্রসঙ্গত, বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে ১৯৯৮ সালের ৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথমবার মিঠামইন সফর করেন। তখন আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য ও ডেপুটি স্পিকার ছিলেন। দীর্ঘ ২৫ বছর পর প্রধানমন্ত্রী আবার মিঠামইন সফরে এসেছেন।