২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ২১শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি / সকাল ৯:৩২

শেষ ওয়ানডে দুপুর আড়াইটায়

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের থেকে বিশ্বকাপ নিয়ে পরিকল্পনায় ব্যস্ত বাংলাদেশ। ব্যাটিং ভালো হলেও, জুটি গড়ায় উন্নতির জায়গা দেখছেন অ্যালান ডোনাল্ড। পেইসারদের এক ইউনিট হয়ে ওঠা স্বস্তি দিচ্ছে বোলিং কোচকে। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ওয়ানডে শুরু বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায়।

টিম বাস থেকে নেমে সবার আগে মাঠে হাথুরুসিংহে। টানা বৃষ্টিতে উইকেটে পরিবর্তন এসেছে কি-না, সেটাই যেন দেখলেন। উইকেট কিংবা একাদশে পরিবর্তন আসুক আর না আসুক তার পরিকল্পনাতে যে কোনো পরিবর্তন আসবে না সেটা শতভাগ নিশ্চিত। সিরিজ জিততে বাংলাদেশ খেলবে আগ্রাসি ক্রিকেট।

বৃষ্টিতে দ্বিতীয় ওয়ানডে ভেসে না গেলে সিরিজ জিতে নির্ভার থাকতে পারত বাংলাদেশ। তবে সেই হতাশা ভুলে পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা রাখাই লক্ষ্য।

বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ অ্যালান ডোনাল্ড, পার্টনারশিপগুলো বড় করতে পারলে আরও বেশি রান তোলা সম্ভব। এখানে উন্নতির জায়গা আছে। দল হিসেবে আমরা ভাল করছি, আমি শুধু চাই ধারাবাহিকতা থাকা।

পেইসারদের পারফর্মেন্স বিশেষভাবে স্বস্তি দিচ্ছে ডোনাল্ডকে।

ডোনাল্ড আরও বলেন, পেইসাররা সবাই ভাল করছে। বিশেষ করে এবাদত অনেক উন্নতি করেছে। পেইসাররা এখন একটা ইউনিট হয়ে খেলে। ভাল বল করতে পারলে, সামনে আরও সাফল্য ধরা দেবে।

আয়ারল্যান্ড অপ্রত্যাশিতভাবে বড় একটা সুযোগ পেয়ে গেছে। দুই ম্যাচে বাংলাদেশের খেলা ভয় ধরিয়েছে। তৃতীয় ওয়ানডেতে সাহসী ক্রিকেট খেলে, সিরিজ ড্র করার মিশন আইরিশদের।

আয়ারল্যান্ডের ব্যাটার লরকান টাকারের ভাষ্যে, বাংলাদেশ দুর্দান্ত খেলেছে। মুশফিকের ব্যাটিং থেকে আমরা শিখছি অনেক কিছু। জয় পাওয়া কঠিন হবে। তবে আশা তো থাকবে জেতার।

ম্যাচের আগের দিনও বৃষ্টি হয়েছে সিলেটে। তবে আশার কথা ম্যাচের দিন আবহাওয়া পূর্বাভাসে বৃষ্টি নেই। উইকেট আর কন্ডিশন আগেই মতোই থাকবে।

ম্যাচের আগে শেষ অনুশীলনে আসেননি মুশফিক ও সাকিব। বাকিরা ঝালিয়ে নিয়েছেন নিজেদের। বাংলাদেশ একাদশে একটা পরিবর্তন আসতে পারে। মিরাজ ফিরেছেন ইনজুরি কাটিয়ে।