২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ / ১৮ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ১:৩৯

সমঝোতার নির্বাচনে জাতীয় পার্টি

একের পর এক নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে সমঝোতার নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে জাতীয় পার্টি। গতকাল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে ২৬ আসনে সমঝোতা হয়েছে দলটির। যদিও জাতীয় পার্টির চাওয়া আরও বেশি থাকলেও আওয়ামী লীগ এর বেশি আসন দিতে রাজি হয়নি। ফলে সকল জল্পনা-কল্পনা শেষে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটভুক্ত হয়ে ২৬টি আসনসহ মোট ২৮৩ আসনে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে জাতীয় পার্টি।

এদিকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন ছিল গতকাল। তাই সবার চোখ ছিল জাতীয় পার্টির দিকে। দলটির নেতারা কি শেষ মুহূর্তে নির্বাচনে অংশ নিবে, না বর্জনের পথে হাঁটবে- এসব আলোচনা ঘুরপাক খাচ্ছিল রাজনৈতিক মহলে। তবে গতকাল বিকাল সাড়ে ৩টা নাগাদ রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দ্বাদশ নির্বাচনে অংশ নেয়ার এ কথা জানান দলটির মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু।

তিনি বলেন, আমরা নির্বাচনে যাচ্ছি। নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু ও অর্থবহ হয় সেই লক্ষ্যে সকল রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করব। তবে এই মুহূর্তে বলতে চাই, আমরা নির্বাচনে যাচ্ছি। চুন্নু জানান, এবার আওয়ামী লীগকে ছাড়াই জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যাবে জাতীয় পার্টি। ২৮৩ আসনে স্বতন্ত্রভাবে (জোটগতভাবে নয়) নির্বাচন করবেন তারা। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন কিছু কিছু আসনে সমঝোতা হচ্ছে বা হবে। নির্বাচনে আমরা যাচ্ছি। সব বাধা উপেক্ষা করে আমরা নির্বাচনে যাচ্ছি।