২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / ১৯শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি / সন্ধ্যা ৬:৩১

হিটস্ট্রোক থেকে বাঁচাতে জেল থেকে সরিয়ে গৃহবন্দী করা হলো সু চিকে

মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী কারাবন্দী অং সান সু চিকে কারাগার থেকে সরিয়ে গৃহবন্দী করা হয়েছে। চলমান অতিরিক্ত গরমের কারণে বাড়তি সতর্কতা হিসেবে এই পদক্ষেপ নিয়েছে মিয়ানমারের জান্তা সরকার। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের আটক সাবেক নেত্রী ও নোবেল বিজয়ী অং সান সু চিকে কারাগার থেকে সরিয়ে গৃহবন্দী করা হয়েছে। দেশটির সামরিক সরকারের একজন মুখপাত্র গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন। ওই মুখপাত্রের বরাত দিয়ে দেশটির চারটি সংবাদমাধ্যম খবর প্রকাশ করেছে।

জান্তা মুখপাত্র মেজর জেনারেল জাও মিন তুন বলেন, ‘আবহাওয়া এখন অত্যন্ত গরম, তাই শুধু অং সান সু চির জন্য নয়, বরং যাদের সতর্কতা প্রয়োজন আমরা তাদের জন্য এমন পদক্ষেপ নিয়েছি। বিশেষ করে বয়স্ক বন্দীদের, তাদের হিটস্ট্রোক থেকে রক্ষা করার জন্য কাজ করছি আমরা।’

তবে সু চিকে ঠিক কোথায় এবং কোন বাড়িতে রাখা হয়েছে তা জানা যায়নি। জান্তা মুখপাত্র জাও মিন তুন এ বিষয়ে রয়টার্সের অনুরোধে সাড়া দেননি।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সামরিক বাহিনী। ওই দিনই সু চিসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়। ৭৮ বছর বয়সী সু চিকে অভ্যুত্থানের পর বিভিন্ন মামলায় ২৭ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। 

এ বছর ফেব্রুয়ারিতে সু চির ছেলে কিম অ্যারিস বলেছিলেন, তাঁর মাকে নির্জন কারাগারে রাখা হয়েছে। তাঁর স্বাস্থ্য খুব একটা ভালো নয় বলেও জানান অ্যারিস। 

এদিকে আটকের পর থেকেই বিশ্বনেতারা এবং মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেতারা বার বার সু চিকে কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আসছেন।