২৯শে নভেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ / ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ / ১৫ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৫ হিজরি / রাত ৮:৩৪

২২ রানে জিতল বাংলাদেশ

সাগরিকায় আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে টাইগাররা। পাওয়ার প্লেতে লিটন দাস ও রনি তালুকদারের রেকর্ড জুটিতে বড় সংগ্রহের ভীত পেয়ে যায় সাকিব আল হাসানের দল। শেষ পর্যন্ত রনির ৬৭ রানের বিধ্বংসী ইনিংসে ১৯.২ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৭ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় স্বাগতিকরা। বৃষ্টির কারণে ইনিংসের শেষ চার বল মাঠে গড়ায় নি। দীর্ঘক্ষণ খেলা বন্ধ থাকার পর আবার মাঠে গড়াতে যাচ্ছে। শেষ পর্যন্ত বৃষ্টির বাগড়ার পর আইরিশদের লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ৮ ওভারে ১০৪ রান। বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা পায় পল স্টার্লিংরা। কিন্তু মিডেল ওভারে খেই হারায় আইরিশরা, শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ২২ রানে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। 

বৃষ্টির বাগড়ায় ২০ ওভারের ম্যাচ কমে ৮ ওভারে আসে। সফরকারীদের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৮ ওভারে ১০৪ রান। সেই লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রথম দুই ওভারে বিনা উইকেটে ৩২ রান তুলে ম্যাচ জয়ের ভীত গড়ে তুলে আইরিশরা। তবে তাসকিন আহমেদের গতিতে মিডেল ওভারে বিপাকে পড়ে আয়ারল্যান্ড। শেষ পর্যন্ত ৮ ওভারে ৮১ রানে থামে পল স্টার্লিংয়ের দল। টাইগারদের হয়ে ৪টি উইকেট শিকার করেন পেসার তাসকিন।  

এর আগে সাগরিকায় তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে টাইগাররা। পাওয়ার প্লেতে লিটন দাস ও রনি তালুকদারের রেকর্ড জুটিতে বড় সংগ্রহের ভীত পেয়ে যায় সাকিব আল হাসানের দল। শেষ পর্যন্ত রনির ৬৭ রানের বিধ্বংসী ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে  উইকেট হারিয়ে  রানের বিশাল সংগ্রহ পায় স্বাগতিকরা।  

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভার থেকেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে থাকে দুই ওপেনার। লিটন-রনির ব্যাটে ভর করে ইনিংসের প্রথম ওভারেই ১১ রান তুলে বাংলাদেশ। হ্যারি টেক্টরের প্রথম ৩ বলে ২ রান আসার পর চতুর্থ বলে ডাউন দা গ্রাউন্ডে এসে লং অন দিয়ে ছক্কা মারেন লিটন দাস। পরবর্তীতে মার্ক এডেয়ারের ওভার থেকে আসে ১৪ রান। এরপর আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে দ্রুত রান তুলতে থাকে বাংলাদেশ। 

পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশের রেকর্ড স্কোর তুলে রনি ও লিটন। পাওয়ার প্লে’তে কোনও উইকেট না হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৮১ রান তুলে স্বাগতিক বাংলাদেশ। যা পাওয়ার প্লে’তে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোর।

এর আগে সাকিব বাহিনীর পাওয়ার প্লে’তে সর্বোচ্চ রান ছিল ৭৪। ২০১৮ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই রান করেছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। কিন্তু অষ্টম ওভারে ব্যক্তিগত ৪৭ রান করে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার লিটন। 

তবে এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে থেকে নিজের অর্ধশতক পূরণ করেন আরেক ওপেনার রনি তালুকদার। আইরিশদের বোলারদের উপর চড়াও হয়ে ব্যক্তিগত ৬৭ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন এই ডানহাতি ব্যাটার। 

শেষ দিকে শামীম হোসেন পাটুয়ারীর ৩০ রান ও সাকিবের  রানের ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৭ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।