মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ১৬ বছরের এক প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে


এম.এ.টি রিপন প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৬, ২০২০, ১:০০ অপরাহ্ন / ৩৫
মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ১৬ বছরের এক প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ১৬ বছরের এক প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল রোববার রাতে সাটুরিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছে ধর্ষিতার পরিবার

জানা যায়, রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার পাতিলাপাড়া এলাকায় ওই যুবতীকে জোর করে ধরে নিয়ে ধর্ষণ করে প্রতিবেশি চাচাতো ভাই জিয়া। বখাটে জিয়াউর রহমান জিয়া (১৮) একই গ্রামের জয়নাল আবেদিনের পুত্র।

ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেশি জিয়া নামে চাচাতো ভাই দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন প্রলোভনে আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমি তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সে সেদিন সন্ধ্যায় আমাকে বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক টেনে হিঁচড়ে বসতঘরের পিছনে জঙ্গলে নিয়ে যায়। এর পর মুখ চেপে ধরে জোর করে ওই জঙ্গলে খারাপ কাজ করে।’

ধর্ষিতার মা অভিযোগ করে জানান, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার বরাইদ ইউনিয়নের পাতিলাপাড়া গ্রামের মো: জয়নাল আবেদিনের বখাটে ছেলে জিয়াউর রহমান আমার শ্বেত প্রতিবন্ধী মেয়েকে উত্যক্ত করে আসছে। গত রোববার রাতে মেয়েকে রেখে আত্মীয় বাড়ি বেড়াতে গেলে সন্ধ্যায় জোরপূর্বক ধরে নিয়ে বাড়ি পেছনের জঙ্গলে ধর্ষণ করে। মেয়ের আর্তচিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এলে ধর্ষক জিয়া পালিয়ে যায়। পরে মেয়ে আমার কাছে ধর্ষণের ঘটনা খুলে বলে।

ধর্ষিতার মা আরো বলেন, মেয়ের অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে ওই রাতেই মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে সাটুরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো: হাবিবুর রহমান জানান, ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে সাটুরিয়া থানায় জিয়া নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। শ্বেত প্রতিবন্ধী মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে।