গাজীপুরে শিশুসহ ২ খুন : ভাড়াটিয়া দম্পতি গ্রেফতার


এম.এ.টি রিপন প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৯, ২০২০, ৪:৫০ পূর্বাহ্ন / ১৯
গাজীপুরে শিশুসহ ২ খুন : ভাড়াটিয়া দম্পতি গ্রেফতার

গাজীপুরে বাসাভাড়ার বকেয়া টাকা নিয়ে বাগি¦তণ্ডার জেরে বাড়ির মালিকের শিশুকন্যাকে গলা কেটে মঙ্গলবার রাতে হত্যা করেছে এক ভাড়াটিয়া দম্পতি। এ ঘটনায় ওই দম্পতিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ দিকে একই রাতে এক অটোরিকশা চালককে খুন করে তার রিকশা ছিনিয়ে নিয়েছে ছিনতাইকারীরা।
কালিয়াকৈর থানার ওসি মনোয়ার হোসেন চৌধুরী ও নিহত শিশুর স্বজনরা জানান, প্রায় তিন মাস আগে কালিয়াকৈর উপজেলার সূত্রাপুর গ্রামের সাহেব আলীর বাসা মাসিক পাঁচ হাজার টাকা চুক্তিতে ভাড়া নেয় সুমন মিয়া। বগুড়া সদর উপজেলার ফুলবাড়ি উত্তরপাড়া এলাকার মৃত বিল্লাল হোসেনের ছেলে সুমন মিয়া তার স্ত্রী মিলি বেগমকে নিয়ে ওই ভাড়া বাসায় বসবাস করতে থাকে। গত দুই দিন আগে গত মাসের (অক্টোবর) বকেয়া ভাড়া পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে ভাড়াটিয়া সুমনের সাথে বাড়ির মালিক সাহেব আলীর বাগি¦তণ্ডা হয়। এতে বাড়ির মালিকের ওপর ক্ষিপ্ত হয় সুমন ও তার স্ত্রী মিলি বেগম। এর জেরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়ির মালিকের শিশু মেয়ে লামিয়া আক্তার লিমুকে (১০) কৌশলে বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত ঘরে ডেকে নিয়ে যায় ওই ভাড়াটিয়া দম্পতি। সেখানে তারা গলা কেটে শিশুটিকে হত্যা করে। পরে নিহতের লাশ পাশর্^বর্তী খালে ফেলে দেয় তারা। নিহত লিমু স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।
তারা জানান, দীর্ঘ সময়েও শিশু লিমুকে না পেয়ে তাকে খুঁজতে থাকেন পরিবারের সদস্যরা। লিমুর সন্ধান না পেয়ে বিষয়টি পুলিশকে অবগত করে স্বজনরা। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে স্বজনরা বাড়ির পাশর্^বর্তী খালের পানিতে নেমে লিমুর সন্ধান করতে থাকেন। এ সময় ভাড়াটিয়া সুমন খালের পানিতে নেমে লিমুর লাশের ওপর দাঁড়িয়ে আশপাশের বিভিন্ন স্থানে স্বজনদেরকে খোঁজার পরামর্শ দিতে থাকে। তার আচরণে সন্দেহ হলে নিখোঁজ শিশুর স্বজনরা সুমনের কাছে গিয়ে তার পায়ের নিচে লিমুর লাশ দেখতে পায়। এ সময় তাকে আটক করে স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার এবং ঘটনার সাথে জড়িত সুমন ও তার স্ত্রী মিলি বেগমকে আটক করে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।
এ দিকে জিএমপির কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুবে খুদা ও স্থানীয়রা জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাশিমপুর থানাধীন সুরাবাড়ি এলাকার শাহজাহান ভুঁইয়া মেমোরিয়াল স্কুলের পাশে মঙ্গলবার রাতে এক অটোরিকশা চালক শাকিলের (২০) মাথায় আঘাত করে তার অটোরিকশাটি ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়রা গুরুতর আহত শাকিলকে রাস্তার পাশে পড়ে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় শরীফ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ২টার দিকে শাকিলকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। পুলিশ এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। নিহত শাকিল গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুর থানার চরক কামাল এলাকার সাইদুল ইসলামের ছেলে। সে ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন ইউসুফ মার্কেট এলাকার ইউসুফের বাড়িতে ভাড়া থেকে এলাকায় অটোরিকশা চালাত। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।