কাতারে হার পাঁচ গোলে


এম.এ.টি রিপন প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৫, ২০২০, ৪:১৫ পূর্বাহ্ন / ১৩
কাতারে হার পাঁচ গোলে

বাংলাদেশ জিতবে, সে আশা করেনি কেউই। তবে এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ার স্বপ্ন পরিণত হল দুঃস্বপ্নে। এবার আরও বড় হার। ঢাকায় ২-০, কাতারে ৫-০।

শুক্রবার দোহার আবদুল্লাহ বিন খলিফা স্টেডিয়ামে ১,৮০০ দর্শকের সামনে প্রথমার্ধে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে আরও তিন গোল হজম করেছেন জামাল ভূঁইয়ারা। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ ও ২০২৩ চীন এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের দ্বিতীয় লেগের এই ম্যাচের প্রায় পুরোটা সময়ই দাপটের সঙ্গে খেলেছে কাতারিরা।

এই জয়ে ২০২৩ চীন এশিয়ান কাপের চূড়ান্ত পর্বে চলে গেল এশিয়ান কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কাতার। গোটা ম্যাচে পাঁচটি পরিবর্তন এনেও বড় হার এড়াতে পারেননি জেমি। কাতারের আক্রমণভাগের সামনে দেয়াল হয়ে দাঁড়ানো বাংলাদেশের গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকো বেশ কয়েকটি নিশ্চিত গোল রুখে দিয়েছেন। তা না হলে আরও শোচনীয়ভাবে হারতে হতো অতিথিদের।

কাতারের মাঠে নিজেদের রক্ষণ আঁটোসাঁটো করে খেলার পরিকল্পনা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু এই ম্যাচে খুঁজেই পাওয়া যায়নি মাঝমাঠকে। জামাল ভূঁইয়াদের ছন্নছাড়া অবস্থায় কাতার দুই উইং দিয়ে অহরহ আক্রমণ করেছে।

তাদের খেলোয়াড়দের একা গোল করার প্রবণতা দেখা গেছে। ম্যাচের তিন মিনিটে সাইড পোস্টে বল লাগায় বাংলাদেশ রক্ষা পায় গোল হজম করা থেকে। মিনিটছয়েক পরই গোল। দু’জন ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে আবদুলাজিজ হাতেমের শটে বল জড়ায় জালে। এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

এরপর মুহুর্মুহু আক্রমণে কাতার নাভিশ্বাস তোলে বাংলাদেশের ডিফেন্ডারদের। ঝড় বয়ে যায় গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকোর ওপর দিয়ে। ৩৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আকরাম আফিফ। ঝাঁকড়া চুলের ১১ নম্বর জার্সি পরা এই উইঙ্গার দূরপাল্লার শটে হার মানান নিজের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা জিকোকে। প্রথমার্ধে ২-০ গোলের লিড নেয় কাতার।

২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ কাতার ফিফা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক এগিয়ে। সর্বশেষ র‌্যাংকিংয়ে কাতার বিশ্বে ৫৯তম। আর বাংলাদেশ ১৮৪তম। এরআগে দু’দলের দেখা হয়েছিল চারবার। কাতারের জয় ছিল তিনটি। একটি ড্র। ১৯৭৯ এশিয়ান কাপে কাতারকে রুখে দিয়েছিল বাংলাদেশ।

গোলশূন্য ড্র হয়েছিল সেই ম্যাচ। ২০০৬ এশিয়ান কাপে প্রথম দেখায় বাংলাদেশ ১-৪ গোলে হারে। লাল-সবুজের হয়ে আরমান মিয়া একমাত্র গোলটি করেছিলেন। ফিরতি লেগের ম্যাচে কাতার ৩-০ গোলে হারায় বাংলাদেশকে।

এবার ২০২২ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে গত বছর অক্টোবরে ঢাকায় প্রথম লেগে কাতার ২-০ গোলে হারায় বাংলাদেশকে। দু’সপ্তাহ আগে কাতারে গিয়ে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছেন জামাল ভূঁইয়ারা। কাতার আর্মি দলের কাছে ৩-২ গোলে এবং লুসাইল ক্লাবের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ছয় ম্যাচে পাঁচ জয় ও এক ড্রয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ই-গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে কাতার।

পাঁচ ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে একমাত্র ড্রয়ে পাওয়া এক পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে বাংলাদেশ। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় ১২ হাজার আসনের আবদুল্লাহ বিন খলিফা স্টেডিয়ামে খেলা দেখার জন্য মাত্র ১,৮০০ টিকিট ছাড়া হয়।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশে করোনা প্রোটোকল অনেক কড়াকড়ি। হোম-কোয়ারেন্টিন আইন লঙ্ঘন করায় বৃহস্পতিবার পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে কাল কাতারে ১৬৬ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।