ব্র্যাক ব্যাংকের ডিএমডি হলেন শাহীন ইকবাল


এম.এ.টি রিপন প্রকাশের সময় : এপ্রিল ২৪, ২০২২, ৯:৩৯ পূর্বাহ্ন /
ব্র্যাক ব্যাংকের ডিএমডি হলেন শাহীন ইকবাল

ব্র্যাক ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) পদে পদোন্নতি পেয়েছেন ব্যাংকটির হেড অব ট্রেজারি অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন্স মো: শাহীন ইকবাল, সিএফএ। তিনি সিএফএ সোসাইটি, বাংলাদেশ এর প্রেসিডেন্ট।

শাহীন ইকবাল ব্র্যাক ব্যাংক-এ গড়ে ওঠা একজন প্রতিভাবান কর্মকর্তা। তিনি ২০১৪ সালে হেড অব ট্রেজারি অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন্স পদের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তিনি ব্র্যাক ব্যাংক-এর ট্রেজারিকে ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম শীর্ষস্থানীয় হিসেবে পরিণত করতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

প্রকৌশলী থেকে পরবর্তীতে ব্যাংকার হওয়া শাহীন ইকবাল ২০০৪ সালে ব্র্যাক ব্যাংক-এ যোগদান করেন। ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট বিশেষ করে ফরেন এক্সচেঞ্জ, মানি মার্কেট, ক্যাপিটাল মার্কেট, বিনিয়োগ বিশ্লেষণ, ফাইন্যান্সিয়াল প্রোডাক্টস অ্যান্ড ডেরিভেটিভস, অ্যাসেট লায়াবিলিটি ম্যানেজমেন্ট ও আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে রিলেশনশিপ ম্যানেজমেন্টে তাঁর বিশেষজ্ঞ দক্ষতা আছে।

তিনি বেক্সিমকোতে তার কর্মজীবন শুরু করেন, যেখানে টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কে হাতেকলমে জ্ঞান অর্জন করেন। ১৯৯৯ সালে ডাচ-বাংলা ব্যাংকে যোগদানের মাধ্যমে ব্যাংকিং সেক্টরে পদার্পণ করেন।

তাঁর পদোন্নতি সম্পর্কে ব্র্যাক ব্যাংক-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর. এফ. হোসেন বলেন, “উদ্ভাবনী প্রোডাক্টস ও বিজনেস সেগমেন্টসমূহকে নিবেদিত সহায়তার মাধ্যমে শাহীন ইকবাল গত কয়েক বছরে আমাদের ট্রেজারিকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। তাঁর নেতৃত্বে ট্রেজারি অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন্স ধারাবাহিকভাবে অসাধারণ ফলাফল অর্জন করেছে। মহামারীর সময় ব্যাংকের আয় বৃদ্ধি ছাড়াও উদ্ভাবনী প্রোডাক্টস ও নতুন বাজার সৃষ্টির মাধ্যমে ব্যাংককে আর্থিকভাবে লাভবান করেছেন। আগামী চার বছরে ব্র্যাংক ব্যাংক ব্যবসা দ্বিগুণ করার যে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে, তা অর্জনে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন।”

তিনি বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি, চট্টগ্রাম (বর্তমানে চুয়েট) থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএস.সি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রিশন (আইবিএ) থেকে এমবিএ ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার সিএফএ ইন্সটিটিউট থেকে মর্যাদাপূর্ণ চার্টার্ড ফাইন্যান্সিয়াল অ্যানালিস্ট (সিএফএ) চার্টার অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি সিএফএ সোসাইটি বাংলাদেশ, যা সিএফএ ইন্সটিটিউট ভার্জিনিয়ার সদস্য, এর প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন।