অবৈধ ভিওআইপির অভিযোগে গ্রামীণফোন, রবিসহ ৪ কোম্পানিকে জরিমানা


এম.এ.টি রিপন প্রকাশের সময় : জুন ১৩, ২০২২, ৯:৩৭ পূর্বাহ্ন /
অবৈধ ভিওআইপির অভিযোগে গ্রামীণফোন, রবিসহ ৪ কোম্পানিকে জরিমানা

অবৈধ ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রটোকল (ভিওআইপি) সেবায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত গ্রামীণফোন (জিপি) ও রবি আজিয়াটাসহ চার মোবাইলফোন অপারেটরকে জরিমানা করা হয়েছে। সম্প্রতি টেলিকম খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এই জরিমানা করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র অনুসারে, কিছুদিন আগে অবৈধ ভিওআইপি সেবায় ব্যবহৃত সিম জব্দ করা হয়েছে। এই ব্যবসার সাথে কোম্পানি চারটির সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে এগুলোকে মোট ৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

জরিমানার টাকা পরিশোধের জন্য আলোচিত অপারেটরদের গত ৭ জুন চিঠি দেওয়া হয়েছে।এতে বলা হয়, পুরো টাকা ৩০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।

সবচেয়ে বেশি জরিমানার মুখে পড়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি টেলিটক। জরিমানার পরিমাণ ৫ কোটি টাকা।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২ কোটি টাকা জরিমানা গুণতে হবে রবি আজিয়াটাকে। আর গ্রামীণফোনকে দিতে হবে ৫০ লাখ টাকা। অন্যদিকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা গুণতে হবে বাংলালিংককে।

বিটিআরসির নথিপত্র বলছে, ২০১৮ সালের মার্চ থেকে ২০১৯ সালের আগস্ট পর্যন্ত বিটিআরসি অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ভিওআইপি সরঞ্জামসহ ৪ অপারেটরের ৫২ হাজারের বেশি সিম জব্দ করে। সবচেয়ে বেশি সিম জব্দ হয়েছিল টেলিটকের, ৩২ হাজার ৮৪৫টি।

অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রবির ১৬ হাজার ৩৯০টি, গ্রামীণফোনের ২ হাজার ৩৫৬ ও বাংলালিংকের ৭৫৩টি সিম জব্দ করা হয়েছিল।

এর প্রেক্ষিতে প্রযোজ্য প্রক্রিয়া শেষে টেলিটককে প্রায় ১৭ কোটি ৭৪ লাখ টাকা, রবিকে ৭ কোটি ৫৫ লাখ টাকা, গ্রামীণফোনকে প্রায় ৯৯ লাখ টাকা এবং বাংলালিংককে ৩৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। পরবর্তীতে কোম্পানিগুলোর আবেদনের প্রেক্ষিতে সবারই জরিমানা