মাঝ আকাশে দুই বিমানের সংঘর্ষ


এম.এ.টি রিপন প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৩, ২০২২, ৪:৩৬ অপরাহ্ন /
মাঝ আকাশে দুই বিমানের সংঘর্ষ

 যুক্তরাষ্ট্রে মাঝ আকাশে সংঘর্ষের পর দু’টি সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। মূলত মাঝ আকাশে বিমান দু’টির সংঘর্ষের পর মাটিতে ভেঙে পড়ে এবং বিধ্বস্ত হয়। 

শনিবার (১২ই নভেম্বর) স্থানীয় সময় যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের স্মারক এয়ারশোতে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঠিক কতজন আহত বা নিহত হয়েছেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

রোববার (১৩ই নভেম্বর) বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানায় ।

ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেডারেল কর্মকর্তারা জানিয়েছেন টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের স্মারক এয়ারশোতে দুটি মার্কিন ভিনটেজ সামরিক বিমান মধ্য আকাশে সংঘর্ষের শিকার হয়। পরে বিধ্বস্ত হয় এবং মাটিতে পড়ে আগুন ধরে যায়। এই ঘটনায় কতজন আহত বা নিহত হয়েছেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

বার্তা সংস্থাটি বলছে, শনিবার দুপুরে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার বোয়িং বি-১৭ ফ্লাইং ফোর্টেস বোমারু বিমান এবং একটি বেল পি-৬৩ কিংকোবরা ফাইটার বিমান ডালাস এক্সিকিউটিভ বিমানবন্দরের উইংস ওভার ডালাস এয়ারশোতে উড়ছিল বলে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) জানিয়েছে।

বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা টুইটারের এক বর্তায় বলেছে, দুর্ঘটনার পর জরুরি কর্মীরা দুর্ঘটনাস্থলে ছুটে যায় । তবে ওই বিমান দু’টিতে ঠিক কতজন আরোহী ছিলেন তা স্পষ্ট নয় বলে এফএএ জানিয়েছে।

কমেমোরেটিভ এয়ার ফোর্স (সিএএফ) নামে একটি গ্রুপ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের যুদ্ধবিমান সংরক্ষণের কাজ করে থাকে। দুর্ঘটনার পর এক সংবাদ সম্মেলনে সিএএফের সভাপতি এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হ্যাংক কোটস বলেন, সাধারণত চার থেকে পাঁচজনের ক্রু থাকে বি-১৭ বিমানে । 

এসময় কোটস আরও জানান পি-৬৩ বিমানটি একক পাইলটের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। তবে এই দুর্ঘটনার সময় শনিবারের বিমানটিতে ঠিক কতজন লোক ছিলেন এবং তাদের নাম বা তাদের অবস্থা সম্পর্কে কিছু বলতে পারেনি তিনি। 

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) এবং ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেফটি বোর্ড (এনটিএসবি) উভয়ই এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

এদিকে, মাঝ আকাশে সামরিক বিমানের মধ্যে সংঘর্ষ ও বিধ্বস্তের ঘটনার বেশ কিছু ভিডিও ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। এতে উড্ডয়নরত অবস্থায় দু’টি বিমানের মধ্যে সংঘর্ষ এবং এরপর সেগুলোকে মাটিতে বিধ্বস্তের পর আগুনে আচ্ছন্ন হতে দেখা যায়।